শুক্রবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭

চরমোনাইর চরমোনাই বাৎসরিক (ফাল্গুন) মাহফিলকে ঘিরে মুসল্লীদের ভীড়ে মুখরিত বরিশালের কীর্তনখোলা নদীর তীর

চরমোনাইর বাৎসরিক (ফাল্গুন)  মাহফিলকে ঘিরে বরিশালের কীর্তনখোলা নদীর তীর এখন সারাদেশ থেকে আগত মুসল্লীদের ভীড়ে মুখরিত। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আগত মানুষ যেনো নির্বিঘ্নে চরমোনাই’র মাহফিলে পৌঁছাতে পারে সে জন্য দেশবাসীসহ সংশ্লিষ্ট সকলে দু‘আ করেছে। আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি বাদ জু‘আ আমীরুল মুজাহিদীন হযরত মাওলানা মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করীম পীর সাহেব হুজুরের উদ্বোধনী বয়ানের মধ্য দিয়ে ৩ দিন ব্যাপী এ মাহফিলের কার্যক্রম শুরু হবে।

১০ বর্গকিলোমিটারব্যাপী ৪টি মাঠে সামিয়ানা টানানো হয়েছে, যাতে প্রায় ৬০ লক্ষ লোক অবস্থান করতে পারবে। কিন্তু বিগত অভিজ্ঞতায় দেখা গেছে আখেরী মুনাজাতে সামিয়ানার বাইরেও অসংখ্য মানুষ অবস্থান করে। মাহফিলের নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশ-র‍্যাব ছাড়াও নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় হাজার হাজার স্বেচ্ছাসেবক কাজ করবে। নিজস্ব প্রায় ১০০টি ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার মাধ্যমে সবকটি মাঠের নিরাপত্তা মনিটরিং করা হচ্ছে। তিন হাজার হর্ণের মাধ্যমে সব মাঠে বয়ান শোনার ব্যবস্থা আছে। নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় ৩টি হাই ভোল্টেজ অটো জেনারেটর রয়েছে। মুসল্লীদের খাবার পানি ও ওযু-গোছলের জন্য বিশুদ্ধ পানি সরবরাহের ব্যবস্থা রয়েছে সবকটি মাঠে। মুসল্লীদের চিকিৎসা সেবায় বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে ২০০ শয্যাবিশিষ্ট একটি হাসপাতাল রয়েছে।

দেশের মুসল্লীদের পাশাপাশি এবারের মাহফিলে ভারত, সৌদী আরব, ওমান, দুবাই, বাহরাইন, মালয়েশিয়া, লন্ডন ও আমেরিকাসহ বিভিন্ন দেশের বিশিষ্ট আলেম-ওলামা ও মেহমানগণ উপস্থিত হচ্ছেন। দেশ-বিদেশের বিশিষ্ট মেহমানদের জন্য রয়েছে আলাদা মেহমানখানা।

দেশ বিদেশ থেকে ঘরে বসে যাতে সবাই মাহফিলের ভিডিওসহ বয়ান শুনতে পারে সেজন্য www.charmonaivs.net/live এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সরাসরি সম্প্রচার এবং www.facebook.com/mediacharmonai ফেসবুক পেজের মাধ্যমে নিউজ আপডেট প্রচারের ব্যবস্থা করা হয়েছে।