বৃহস্পতিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭

সরকার বিদেশী প্রভুদের খুশি করার জন্য গ্রীক মূর্তির ভাস্কর স্থাপন করেছে: মুফতী ফয়জুল করীম

আইএবি নিউজ: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সিনিয়র নায়েবে আমির আল্লামা মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম বলেছেন, দেশে চোরের পরিবর্তন হলেও নীতির পরিবর্তন হয় না। দেশে ৭০ ভাগ টাকা চুরি হয়। খোদ রাষ্ট্রপতি বলেছেন, দেশে যে পরিমাণ টাকা চুরি হয় তা দ্বারা দু’টি পদ্মা সেতু নির্মাণ করা যেতো। তাই চোরদের দ্বারা দেশ কখনো এক নম্বর হতে পারে না।

তিনি বলেন, সরকার তার বিদেশী প্রভুদের খুশি করার জন্য হিন্দু রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার জন্য গ্রীক মূর্তির ভাস্কর স্থাপন করেছেন। সুপ্রিমকোর্টের সামনে থেকে গ্রীক মূর্তি অপসারণ করা না হলে দুর্বার গণআন্দোলন গড়ে তোলা  হবে।

১৬ ফেব্রুয়ারি'১৭ বৃহস্পতিবার বিকেলে চাষাঢ়ায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ স্বাধীন করা হয়েছিলো জনগণের ন্যায্য অধিকার ফিরিয়ে দেয়ার জন্য। মানুষ তার মৌলিক অধিকার ফিরে পাবে। পাবে ধর্মীয় ক্ষেত্রে স্বাধীনতা। কিন্তু স্বাধীনতার ছেচল্লিশ বছরেও মানুষ তাদের স্বাধীনতার স্বাধ গ্রহণ করতে পারেনি। নেই মানুষের বাক স্বাধীনতা। নেই বিচার বিভাগের স্বাধীনতা। নেই আইনের শাসন। চারদিকে শুধু ধর্ষিতা বোনের রোনাজারী, মজলুম জনতার আর্তনাদ। সন্তান হারা মায়ের চিৎকার, মা হারা সন্তানের বুকফাটা কান্না। এ অবস্থা শুধু ইসলামী মূল্যবোধ না থাকার কারণে। তাই সরকারকে বলবো, বাংলাদেশকে একটি সফল রাষ্ট্র হিসেবে বিশ্বের কাছে তুলে ধরতে হলে অবশ্যই ইসলামী শিক্ষাকে বাধ্যতামূলক করতে হবে।

জেলার সভাপতি ছাত্র মুহাম্মাদ ওমর ফারুকের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ যুগ্ম-মহাসচিব অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন কেন্দ্রীয় কমিটির মুহতারাম সভাপতি জি এম রুহুল আমীন।