শনিবার, ২৫ মার্চ, ২০১৭

ভারতের সাথে সামরিক চুক্তি দেশবাসী মানবে না; এ চুক্তি হলে দেশ নতুন করে গোলামীর জিঞ্জিরে আবদ্ধ হবে: মুফতী ফয়জুল করীম

আইএবি নিউজ: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম (সাহেবজাদা ও খলিফা, শায়েখ চরমোনাই রহ.) বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর দেশবাসীকে চরম উদ্বিগ্ন করে তুলেছে। এই সফরে তিনি কি কি চুক্তি স্বাক্ষর করবেন জনগণকে তা এখনো জানানো হয়নি। ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের যে সমস্যাগুলো আছে, সেগুলো সমাধান করতে হবে। কিন্তু তিস্তা চুক্তি না হলে কোন্ চুক্তি হবে?

তিনি বলেন, আমরা এখন স্বাধীন আছি কি-না, এ প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। আমাদের ব্যক্তি স্বাধীনতা নেই, রাজনৈতিক স্বাধীনতা নেই, অর্থনৈতিক স্বাধীনতাও হুমকির মুখে। ভারতের সাথে সামরিক চুক্তি হলে আমাদের অভ্যন্তরীণ সব পরিকল্পনা ফাঁস হয়ে যাবে, ফলে নিজস্ব স্বকীয়তা বলতে কিছু থাকবে না। সামরিক চুক্তির ম্যাধমে আমাদের সকল কৌশল জেনে গেলে আমরা টিকে থাকতে পারবো না। আমরা পরাধীনতার শিকলে আজীবনের জন্য আবদ্ধ হয়ে যাব।

মুফতী ফয়জুল করীম বলেন, ২৫ সাল গোলামী চুক্তির খেসারত জাতিকে চরমভাবে দিতে হয়েছে। এখন সামরিক চুক্তি হলে চিরদিনের জন্য ভারতের গোলামী করতে হবে। কাজেই দেশপ্রেমিক সেনাবাহিনীকে শেষ করার জন্য সামরিক চুক্তির নামে গোলামী চুক্তি দেশপ্রেমিক ঈমানদার জনতা মানবে না। দেশের লক্ষ লক্ষ মানুষ যারা স্বাধীনতার জন্য যুদ্ধ করেছে, যারা জীবন দিয়ে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ছিনিয়ে নিয়ে এসেছে, এটাতে উদ্বিগ্ন না হয়ে পারে না।

তিনি বলেন, জনগণের সেন্টিমেন্ট বুঝে ভারতের সাথে প্রতিরক্ষা চুক্তি থেকে বিরত থাকতে হবে সরকারকে। কেননা যে জাতি স্বাধীনতার জন্য জীবন ও রক্ত দিতে পারে সে জাতিকে কোনভাবেই দমিয়ে রাখা যাবে না।

শনিবার (২৫ মার্চ) ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মজলিসে আমেলার জরুরি সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের রাজনৈতিক উপদেষ্টা অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক কেএম আতিকুর রহমান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ুম, মুফতি হেমায়েতুল্লাহ, আলহাজ্ব আব্দুর রহমান, মুফতি কেফায়েতুল্লাহ কাশফী, মু. বরকত উল্লাহ লতিফ প্রমুখ।