বুধবার, ২৯ মার্চ, ২০১৭

ইশা ছাত্র আন্দোলন চাঁদপুর সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ শাখার সম্মেলন অনুষ্ঠিত

স্টাফ রিপোর্টার ॥

ইসলাম  শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন চাঁদপুর সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ শাখার উদ্যোগে ২৮ মার্চ মঙ্গলবার দুপুর ১২.১৫ মিনিটে কলেজ গ্যালারি মিলানায়তনে কলেজ সম্মেলন ২০১৭ অনুষ্ঠিত হয়। ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন চাঁদপুর সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ শাখার সভাপতি মুহাম্মাদ মহসিন হোসেনের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক এস এম মহিউদ্দিন মিয়াজীর পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সেক্রেটারি জেনারেল শেখ মুহাঃ সাইফুল ইসলাম।

তিনি বলেন, মহান স্বাধীনতার মাস বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে

স্মরণীয় মাস। এ মাসে বাংলাদেশের

কোটি কোটি জনতা স্বাধীনতার তরে ঝাপিয়ে পড়েন মহান

মুক্তিযুদ্ধে। দীর্ঘ ৯ মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের

পর আমরা স্বাধীনতা অর্জন করেছিলাম।

কিন্তু আমরা আমাদের কাঙ্খিত

স্বাধীনতা আজও পাইনি। এদেশের মানুষ পাকিস্তানী আমলে যেমন বৈষম্যের স্বীকার হতো এখনো সাধারণ জনগন সেই বৈষম্যের স্বীকার। খুন, হত্যা, গুম, ধর্ষন, লুন্ঠন, দুর্নীতি এখনো হচ্ছে। সুতরাং শুধু নেতার বদল হলে কাঙ্খিত মুক্তি পাওয়া সম্ভব নয়, প্রয়োজন নীতির পরিবর্তন।

ইসলামী শাসন ব্যবস্থা ছাড়া এই ৯০ ভাগ মুসলমানের দেশে মুক্তি, স্বাধীনতা

পাওয়া অসম্ভব।

আমাদের দেশের শাসক শ্রেণীর দুর্বলতার কারণে ভিনদেশী সাংস্কৃতিক আগ্রাসনের শিকার হচ্ছে দেশ। আমাদেরকে ভারতীয় সাংস্কৃতিক আগ্রাসনে জর্জরিত করেছে। নিজস্ব সংস্কৃতির চর্চার পরিবর্তে ভিনদেশী সংস্কৃতির আমদানী করা হচ্ছে। গ্রীক দেবীর মূর্তিও মুসলমানের সংস্কৃতি নয়, এটা ভারতীয় সংস্কৃতি। মূর্তির সংস্কৃতি রুখে দিতে হবে। মূর্তি অপসারণের দাবীতে আগামী মাস থেকে আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে চাঁদপুরে। কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে ছাত্র সংসদ পূনারায় চালু করার দাবীতে চাঁদপুরে কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে মানববন্ধন, অধ্যক্ষ বরাবর স্বারকলিপি প্রদান সহ বিক্ষোভ সমাবেশ এর কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

শেখ মুহাঃ সাইফুল ইসলাম বলেন, সরকারের দলের মন্ত্রীরা মূর্তিকে ন্যায় বিচারের প্রতীক মনে করে মূর্তির পক্ষে অবস্থান নিয়ে নিজেরাও ঈমানহারা হচ্ছে এবং দেশবাসীকেও ঈমানহারা বানাচ্ছে। নব্য নাস্তিক-মুরতাদ ও নবীর দুশমনসহ সকল ষড়যন্ত্রকারী শক্তিকে রুখে দিতে হবে। ভাষা আল্লাহরই দান। মুখের ভাষাকে যারা কেড়ে নিতে চেয়েছিল তারা আসলেই মানবতার শত্রু। এই মানবতার শত্রুদের যেভাবে বাংলার দামাল ছেলেরা পরাজিত করে বাংলা ভাষা প্রতিষ্ঠা করেছিলেন তেমনিভাবে মহানবীর দুশমন নব্য নাস্তিকদের বিরুদ্ধে সর্বাত্মক সংগ্রামে অবতীর্ণ হতে হবে। আজ কলেজ ক্যাম্পাসে ইসলামী দলগুলোকে কোনঠাসা করে রাখতে চায়। আমাদের বাকস্বাধীনতা যালিম গোষ্ঠী কেড়ে নিতে চায়, প্রকাশ্যে প্রোগ্রাম করতে বাঁধা সৃষ্টি করতে চায় এ স্বাধীন দেশে সকল প্রকার অরাজকতা অপরাজনীতি উৎখাত করে সুষ্ট রাজনিতির পরিবেশে ক্যাম্পাসগুলোতে আনতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চাঁদপুর জেলা শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতি মাওলানা মুজাম্মিলুল হক, সেক্রেটারি শেখ মুহাঃ জয়নাল আবদীন, জয়েন্ট সেক্রেটারি মাওলানা কে এম ইয়াসিন রাশেদ সানী, ছাত্র ও যুব বিষয়ক সম্পাদক শাহ্ জামাল গাজী সোহাগ, ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন জেলা সভাপতি মুহাম্মদ রিয়াজুর রহমান, সহ-সভাপতি শেখ রায়হান মুহাঃ আকতার, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চাঁদপুর জেলা শাখার সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ মামুনুর রশীদ খান বেলাল, সদর উপজেলা সেক্রেটারি মাওলানা মোঃ নুর উদ্দিন, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন চাঁদপুর জেলা শাখার সভাপতি মাওলানা আফসার উদ্দীন।

অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন চাঁদপুর সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক নেছার উদ্দীন, অর্থ সম্পাদক মোঃ আসাদুল্লাহ্ সুমন, দফতর সম্পাদক মহসিন ঢালী, ছাত্র কল্যাণ সম্পাদক মোঃ মনজুর গাজী, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম সহ কলেজ শাখার অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

প্রধান অতিথি ২০১৬ সেশনের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে ২০১৭ সেশনের ১ বছেরর নতুন কমিটিতে সভাপতি এস এম মহিউদ্দিন মিয়াজী, সহ-সভাপতি মোঃ নেছার উদ্দীন ও সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মাদ আনোয়ার হোসেন সজীব এর নাম ঘোষণা করে সংগঠনের নীতিমালা অনুযায়ী শপথবাক্য পাঠ করান। দেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদদের জন্য এবং দেশবাসীর জন্য বিশেষ দোয়া ও মুনাজাত করে সম্মেলন সমাপ্তি করেন।