রবিবার, ১৬ এপ্রিল, ২০১৭

ন্যায় ও সাম্যের সমাজ প্রতিষ্ঠা ও সমৃদ্ধশালী দেশ গঠনে ইসলামী শাসনতন্ত্র প্রতিষ্ঠার বিকল্প নেই: ইশা ছাত্র আন্দোলন

স্টাফ রিপোর্টার : রবিবার (১৬ এপ্রিল’১৭) ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি জি.এম. রুহুল আমীন, কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি শাইখ ফজলুল করীম মারুফ ও সেক্রেটারি জেনারেল শেখ মুহাম্মাদ সাইফুল ইসলাম দাওয়াতি পক্ষ উপলক্ষে এক যুক্ত বিবৃতিতে বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৪৬ বছর পার হলেও জনগণের স্বাধীনতার স্বপ্ন আজও স্বপ্নই থেকে গেল। স্বাধীনতার পর বারবার নেতার পরিবর্তন হলেও জনগণের কাক্সিখত মুক্তি আসেনি। এর জন্য দায়ি মানবরচিত মতবাদ ও শাসনতন্ত্র। মানবরচিত শাসনতন্ত্র পরিবর্তন ছাড়া মানুষের স্থায়ী কল্যাণ, শান্তি, মুক্তি, নিরাপত্তা ও ন্যায় বিচার সম্ভব নয়। অতএব ন্যায় ও সাম্যের সমাজ প্রতিষ্ঠা ও সমৃদ্ধশালী দেশ গঠনে ইসলামী শাসনতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, আজ আমাদের জাতীয় উন্নয়ন বাধাগ্রস্থ করতে জাতির মাঝে বিভাজন সৃষ্টির অপচেষ্ট চলছে। কিছু গণবিচ্ছিন্ন শেকড়হীন বাম আমাদের জতীয় ঐক্যে ফাটল ধরানোর চেষ্টা করছে। এদের ব্যাপারে সরকারকে ব্যবস্থা নিতে হবে।

বিবৃতিতে তারা আরো বলেন, এদেশের হাজার বছরের ইতিহাস-ঐতিহ্য ও সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের মূল্যবোধ বিরোধী অপসংস্কৃতি এ জাতির ওপর চাপিয়ে দেয়া হচ্ছে। এর বিরুদ্ধে ছাত্র সমাজসহ দেশবাসিকে গণআন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

নেতৃবৃন্দ ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন কর্তৃক ঘোষিত দাওয়াতি পক্ষে দেশের সর্বস্তরের জনগণের সামনে ইসলামের সুমহান আদর্শ তুলে ধরে জনগণের হৃদয় জয় করে ইসলামী শাসনতন্ত্র প্রতিষ্ঠার দাবিকে গণদাবিতে পরিণত করার লক্ষে ব্যাপকভাবে দাওয়াতি কাজ করার জন্য সংগঠনের সর্বস্তরের জনশক্তির প্রতি আহবান জানান।