শুক্রবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

লংমার্চে বাধা প্রমাণ করে সরকার নতজানু পররাষ্ট্রনীতি গ্রহণ করেছে : অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান

ইসলামী  আন্দোলন বাংলাদেশ আহুত গত ১৮ই ডিসেম্বরের লংমার্চ ছিল অধিকার বঞ্চিত নির্যাতিত রোহিঙ্গা মুসলিম তথা মানবতার পক্ষের একটি অরাজনৈতিক মানবতাবাদী কর্মসূচী। অথচ সরকার এই লংমার্চে বাধা দিয়ে প্রমাণ করেছে তারা মানবতার পক্ষের নয়, তারা নতজানু পররাষ্ট্রনীতি গ্রহণ করেছে। দেশের জনগনের আশা ছিল, লংমার্চে অংশগ্রহণণ করা সারাদেশ থেকে আগত জনগনকে সরকার ও প্রশাসন সার্বিক সহযোগিতা করবে। অথচ নানান টালবাহানা করে মানবতাবাদী লংমার্চকে বানচাল করার চেষ্টা করেছে।

 

আজ ২৩ ডিসেম্বর"১৬ ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর উত্তর কর্তৃক নগর সভাপতি অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত যৌথ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মুহতারাম যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান উপরোক্ত কথা বলেন।

 

সভাপতির বক্তব্যে অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ বলেন, সরকার জাতীয় শিক্ষানীতি ও শিক্ষা আইনের মাধ্যমে ৯২ শতাংশ মুসলিমদের অন্তরে ক্ষোভের আগুন জ্বালিয়ে দিয়েছে। হিন্দুত্ববাদ ও নাস্তিক্যবাদী শিক্ষানীতি ও শিক্ষা আইন এদেশের আপামর জনতা কখনো মেনে নেয় নাই, মেনে নিবেও না। অবিলম্বে জাতীয় শিক্ষানীতি ও শিক্ষা আইনের সংস্কার করুন। নতুবা দেশে যেকোনো পরিস্থিতির জন্য সরকার বাহাদুরকেই দায়ী থাকতে হবে।

 

নগর সেক্রেটারি মুহাম্মদ মোশাররফ হোসেনের সঞ্চালনায় উক্ত সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নগর সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন, আলহাজ্ব হারুন অর রশিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা সিদ্দিকুর রহমান, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল ইসলাম নাঈম, দফতর সম্পাদক নিজাম উদ্দিন, সহ-দফতর সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার গিয়াস উদ্দিন, অর্থ সম্পাদক আলহাজ্ব নাজমুল ইসলাম, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক আলাউদ্দিন সহ নগর ও থানা শাখার নেতৃবৃন্ইসলামী