শুক্রবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭

সুপ্রিমকোর্ট প্রাঙ্গণে মূর্তি নির্মাণের নামে সরকার আগুন নিয়ে খেলছে: পীর সাহেব চরমোনাই

আইএবি নিউজ: সকল আন্দোলন-সংগ্রাম ও পটপরিবর্তনে ছাত্র সমাজের ভূমিকা অনস্বীকার্য ছিল। তাই মজলুম মানবতার মুক্তির পক্ষে ইশা ছাত্র আন্দোলনকেই বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করতে হবে। শিক্ষা সিলেবাস পরিবর্তনে যেভাবে ইশা ছাত্র আন্দোলন অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে ঠিক একই ভাবে সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রীমকোর্ট প্রাঙ্গণে স্থাপিত মূর্তি অপসারণে ও রাজপথে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে হবে। মূর্তি বা ভাষ্কার্য যে নামেই হোক না কেন, এটি একটি নির্দিষ্ট ধর্মের বিশ্বাস। সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলমানের দেশে তা কোনভাবেই মেনে নেয়া হবে না।



আজ ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৭ইং শুক্রবার সকাল ৯টায় লকাসাম গাল্ফ কমিউনিটি সেন্টারে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন কুমিল্লা জেলা দক্ষিণ এর সভাপতি মু. মনিরুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মু. রবিউল হোসেনের  সঞ্চালনায় “জেলা সম্মেলন”-১৭ এর প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করীম (পীর সাহেব চরমোনাই) উপর্যুক্ত কথা বলেন।

জেলা সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন এর কেন্দ্রীয় তথ্য-গবেষণা ও প্রচার সম্পাদক মু. ইলিয়াছ হাসান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় সদস্য আলহাজ্জ সেলিম মাহমুদ, জেলা দক্ষিণের যুব আন্দোলনের আহবায়ক মাওলানা মু. মোরশেদুল আলম, জেলা শ্রমিক আন্দোলন এর সভাপতি আলহাজ্জ মু. শহীদুল্লাহ ভূঁইয়া, সাবেক জেলা ছাত্র আন্দোলনের সভাপতি ডা. আল-হেলাল মাহমুদ। আরো উপস্থিত ছিলেন মাওলানা রাশেদুল ইসলাম রহমতপুরী, নেছার উদ্দিন সুমন, এস.এম শাহাদাৎ হোসাইন, মাওলনা নাজমুল হক, আলহাজ্জ নূর মোহাম্মদ, মাওলানা আহমাদ উল্লাহ খালিদ, আলহাজ্জ মাওলানা নূরে আলম, মাওলানা সাহমুদুর রহমান হাসিব, মাওলানা নূর উদ্দিন প্রমুখ।

জেলা দায়িত্বশীলদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সহ-সভাপতি ইস্রাফিল মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মু. মনির হোসাইন, প্রশিক্ষণ সম্পাদক মু. আহসান উল্লাহ সহ থানা ও জেলা দায়িত্বশীলবৃন্দ।

সম্মেলন শেষে ২০১৬ সেশনের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে ২০১৭ সেশনের নতুন কমিটিতে সভাপতি: ইস্রাফিল মাহমুদ, সহ-সভাপতি: মু. রবিউল হোসাইন ও সাধারণ সম্পাদক: মু. মনির হোসাইন এরর নামনাম ঘোষণা করেন পীর সাহেব চরমোনাই।

কুমিল্লা প্রতিনিধি: মোনির হোসাইন