শুক্রবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭

ফেব্রুয়ারির মধ্যে মূর্তি অপসারণ না করলে ইসলামী মূল্যবোধ রক্ষায় কঠোর আন্দোলন: মুফতী ফয়জুল করীম

আইএবি নিউজ: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর নায়েবে আমীর মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ ফয়জুল করীম বলেন, মুসলিম প্রধান বাংলাদেশের বিচারালয়ে গ্রীক দেবীর মূর্তি স্থাপন করা হচ্ছে। আমরা এর কোনো অর্থ খুঁজে পাই না। গ্রীক দেবী থেমিসের কী প্রাসঙ্গীকতা আছে আমাদের দেশে? বাংলাদেশের বিচারব্যবস্থা কি থেমিসের আদর্শে পরিচালিত হবে? হাজার বছরের মুসলিম ইতিহাস-ঐতিহ্যের দেশ, বাংলাদেশকে গ্রিক থেকে দেবী ধার করতে হবে কেন? ফেব্রুয়ারীর মধ্যে এই মুর্তি অবিলম্বে অপসারণ করতে হবে। অন্যথায়, দেশের ইতিহাস-ঐতিহ্য ও আমজনতার মূল্যবোধ রক্ষায় আমরা কঠোর আন্দোলনে যেতে বাধ্য হবো।

মুফতী ফয়জুল করীম আরো বলেন, মার্কিন বার্ষিক গোয়েন্দা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, “আগামী বিশ্ব হবে সংঘাতের বিশ্ব।” মুসলিম শক্তিগুলো আজ পরস্পর সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েছে। অবৈধ রাষ্ট্র ইজরাইল মুসলিম রাষ্ট্র ফিলিস্তিনকে ধ্বংসস্তুপে পরিণত করেছে। মধ্যপ্রাচ্যকে আমেরিকা-রাশিয়া পরস্পরের শক্তি প্রদর্শনের ক্ষেত্র বানিয়েছে। জাতিসংঘ এক্ষেত্রে অশুভ শক্তিগুলোর মন্ত্রণালয়ে পরিণত হয়েছে। এই জাতিসংঘ মুসলমানদের স্বার্থ রক্ষায় কখনো আন্তরিকতা প্রদর্শন করে নি। এমতাবস্থায় মুসলিম জাতিসংঘ আজ সময়ের দাবিতে পরিণত হয়েছে।

আজ শুক্রবার রাজধানীর পল্টন বাংলাদেশ ফটোজার্নালিস্ট এসোসিয়েশন মিলনায়তনে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন ঢাকা মহানগর পূর্ব কর্তৃক আয়োজিত নগর সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সকাল ৯টা থেকে সম্মেলন শুরু হওয়ার কথা থাকলেও ফজরের পর থেকেই দায়িত্বশীল এবং নেতাকর্মীরা সম্মেলনস্থলে জড়ো হতে থাকেন।

নগর সভাপতি সাইফ মুহাম্মাদ সালমান এর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম-এর সঞ্চালনায় নগর সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন এর কেন্দ্রীয় সেক্রেটারী জেনারেল শেখ মুহাম্মাদ সাইফুল ইসলাম।

প্রধান বক্তা বলেন, বর্তমান শিক্ষা ব্যাবস্থায় প্রশ্ন ফাঁস একটি বড় সমস্যা। প্রশ্ন ফাসেঁর মাধ্যমে একটি কুচক্রী মহল জাতিকে মেধা শূন্য করার চক্রান্ত বাস্তবায়ন করার চেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছে। অবিলম্বে এই প্রশ্ন ফাঁস বন্ধ করার জন্য শিক্ষা মন্ত্রনালয়কে আহবান জানান তিনি। সাইফুল ইসলাম আরো বলেন, মানবতার সার্বিক কল্যাণ, সুশাসন ও বৈষম্যহীন উন্নয়ন নিশ্চিত করতে ইসলামী শাসনতন্ত্রই একমাত্র পন্থা।

বিশেষ মেহমান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগরের সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, ছাত্র ও যুব বিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক ফজলুল হক মৃধা, সহকারী প্রচার সম্পাদক হুমায়ুন কবীর, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক সৈয়দ ওমর ফারুক, ইসলামী যুব আন্দোলন ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সদস্য মুহাম্মাদ তানভীর ও নেছার উদ্দীন হুজাইফ।

সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন ইশা ছাত্র আন্দোলন ঢাকা মহানগর পূর্বের সহ-সভাপতি তাজওয়ার হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহদী হাসান, প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুহাম্মদ ইখতিয়ার হুসাইন, প্রচার সম্পাদক সুলাইমান আহমেদ, অর্থ সম্পাদক মুহাম্মাদ ইউনুস, দফতর সম্পাদক আখতারুজ্জামান মাহদী, কলেজ বিষয়ক সম্পাদক আহমদ আলী হাবিব, স্কুল বিষয়ক সম্পাদক জাহিদ, কওমী মাদ্রাসা বিষয়ক সম্পাদক জামালুদ্দীন মুহাম্মাদ খালিদ, আলিয়া মাদ্রাসা বিষয়ক সম্পাদক শেখ মুহাম্মাদ মাহবুবুর রহমান, ছাত্রকল্যান বিষয়ক সম্পাদক আবু মাহমুদ, সদস্য মনির হোসেন, মোহাম্মদুল্লাহ আল সামী এবং থানা নেতৃবৃন্দ।

বক্তব্য শেষে প্রধান অতিথি ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন-ঢাকা মহানগর পূর্ব এর চলমান কমিটি বিলুপ্ত করে ২০১৭ সেশনের জন্য নতুন কমিটি ঘোষণা করেন।

নবগঠিত কমিটির সভাপতি- সাইফ মুহাম্মাদ সালমান, সহ-সভাপতি-মুহাম্মাদ তাজওয়ার হাসান এবং সাধারণ সম্পাদক-মুহাম্মাদ সিরাজুল ইসলাম মনোনীত হন।
বার্তা প্রেরক: শেখ মুহাম্মাদ মাহবুবুর রহমান