রবিবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭

মূর্তি অপসারণের দাবীতে দেশব্যাপী কর্মসূচি সফল করায় পীর সাহেব চরমোনাই’র অভিনন্দন

আইএবি নিউজ: সুপ্রিমকোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে গ্রীক দেবির মূর্তি অপসারণের দাবীতে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ রবিবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সারাদেশে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধান বিচারপতির নিকট স্মারকলিপি পেশ কর্মসূচি পালন করেছে। স্মারকলিপি পেশ পূর্ব জমায়েতগুলোতে জেলা নেতৃবৃন্দ বলেন, গ্রীক দেবির মূর্তি অপসারণ না করলে সারাদেশে ঈমানী আন্দোলন ছড়িয়ে পড়বে।

সুপ্রিমকোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে মূর্তি অপসারণে দেশের সকল জেলা সদরেই বিক্ষোভ মিছিলের মাধ্যমে শান্তিপূর্ণভাবে স্মারকলিপি কর্মসূচি পালিত হয়েছে। কোথাও কোথাও পুলিশী বাধায় কর্মসূচি পালিত হয়। যেসব জেলায় স্মারকলিপি পেশ হয়েছে তম্মধ্যে রয়েছে- নারায়ণগঞ্জ মহানগর, নরসিংদী, মাদারীপুর, নেত্রকোনা, কিশোরগঞ্জ, শরীয়তপুর, শেরপুর, গাজীপুর, ফরিদপুর, রাজবাড়ী, গোপালগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, টাঙ্গাইল, জামালপুর, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম মহানগর, কক্সবাজার, রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি, বান্দরবান, নোয়াখালী, কুমিল্লা জেলা পূর্ব, চাঁদপুর, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, বি-বাড়ীয়া, সিলেট, হবিগঞ্জ, মৌলভীবাজার, খুলনা, ঝিনাইদহ, যশোর, নড়াইল, মাগুরা, চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর, কুষ্টিয়া, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা, রাজশাহী, জয়পুরহাট, বগুড়া, পাবনা, নাটোর, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, সিরাজগঞ্জ, নওগাঁ, রংপুর, নীলফামারী, কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট, ঠাকুরগাও, দিনাজপুর, গাইবান্ধা, পঞ্চগড়, বরিশাল, ভোলা, পটুয়াখালী, পিরোজপুর, ঝালকাঠী, বরগুনা জেলাসহ দেশের সকল জেলা সদরে পুলিশী বাধা উপেক্ষা করে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালিত হয়। ঢাকা জেলার শাখার উদ্যোগে সকাল ১১টায় ঢাকা জেলা প্রশাসকের বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

স্মারকলিপি প্রদান পূর্ব জমায়েতগুলো জেলা নেতৃবৃন্দ বলেন, মসজিদ নগরী ঢাকাকে মূর্তির নগরী বানাতে দেয়া হবে না। সুপ্রিমকোর্টের পাশেই রয়েছে জাতীয় ঈদগাহ। নামাজে সালাম ফেরানোর সাথে সাথেই দেবি মূর্তি দেখা যাবে যা ঈমান ও আমলের জন্য চরম ক্ষতিকারক। তাই অবিলম্বে মূর্তি অপসারণ করতেই হবে। অন্যথায় দেশবাসীকে সাথে নিয়ে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

সুপ্রিমকোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে গ্রীক দেবির মূর্তি অপসারণের দাবীতে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ সারাদেশে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধান বিচারপতির নিকট স্মারকলিপি পেশ কর্মসূচি সফল করায় সংগঠনের আমীর মুফতী সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করীম শায়েখ চরমোনাই দেশবাসীকে বিশেষ করে দেশের সকল জেলা নেতৃবৃন্দ, সদস্য-কর্মী ও মুহ্বিবীন সাংবাদিকসহ সর্বস্তরের জনতার প্রতি আন্তরিক অভিনন্দন ও মুবারকবাদ জানিয়ে বলেছেন, ৯২ ভাগ মুসলমানের চিন্তাচেতনা বিরোধী মূর্তির সংস্কৃতি দেশবাসী কিছুতেই মেনে নেবে না। তিনি বলেন, ইসলামবিরোধী শক্তিগুলো আলকুফরু মিল্লাতুন ওয়াহিদা হয়ে ইসলাম ও ইসলামী সংস্কৃতি ধ্বংসে মাঠে নেমেছে। তাদের সেই চক্রান্ত রুখে দিতে হবে। তিনি গ্রীক দেবির মূর্তিসহ সারাদেশে স্থাপিত মূর্তি ভেঙ্গে দেয়ার জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানান।