সোমবার, ২০ মার্চ, ২০১৭

র‍্যাব হেফাজতে মৃত হানিফের প্রকৃত ঘটনা দেশবাসীর কাছে প্রকাশ করতে হবে: মুফতী ফয়জুল করীম

আইএবি নিউজ: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মু. ফয়জুল করীম (সাহেবজাদা ও খলিফা, শায়েখ চরমোনাই রহ.) বলেছেন, সরকার আজীবন ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য বিভিন্নভাবে মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে মানুষকে হয়রানী ও হত্যা করছে। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি নারায়ণগঞ্জের কাঁচপুর এলাকা থেকে ডিবি পরিচয়ে তুলে নেয়া মোঃ হানিফকে আশকোনায় র‌্যাবের ক্যাম্পে জঙ্গি হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ১৭ মার্চ গ্রেফতার দেখানো হয়। এর ১ দিন পরই হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। যা অনাকাঙ্খিত। হানিফের প্রকৃত ঘটনা দেশবাসীর কাছে প্রকাশ করতে হবে।

মুফতী ফয়জুল করীম বলেন, হানিফের পরিবার বলছে, ডিবি পরিচয়ে কয়েকজন লোক গত ২৭ ফেব্রুয়ারি নারায়ণগঞ্জের কাঁচপুর এলাকা থেকে তাকে ধরে নিয়ে যায়। র‌্যাব দাবি করছে আশকোনায় র‌্যাব ফোর্সেস ব্যারাকে আত্মঘাতী হামলার দিন সন্দেহভাজন হিসেবে হানিফকে গ্রেফতার করা হয় এবং র‌্যাব অফিসে নেওয়ার পরদিন তার বুকে ব্যথা শুরু হলে হাসপাতালে নেয়ার পর সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

মুফতী ফয়জুল করীম বলেন, হানিফের পরিবারের দাবি সত্য ? নাকি র‌্যারের দাবি সত্য ? এতে সহজেই অনুমেয় দেশে কি সব ঘটছে। এভাবে কত মায়ের বুক খালি করছে তার কোন হিসেব নেই। প্রকৃত ঘটনা উদঘাটন দেশবাসির দাবি।

সোমবার (২০ মার্চ) বিকেলে রাজধানীর সাঈদনগরস্থ একটি মিলনায়তনে ইসলামী যুব আন্দোলনের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি উপরোক্ত কথা বলেন।

সভায় উপস্থিত ছিলেন যুব আন্দোলনের আহ্বায়ক কেএম আতিকুর রহমান, সদস্য সচিব মাওলানা মোহাম্মদ নেছার উদ্দিন, নূরুল ইসলাম আল-আমিন, ইসলামী আন্দোলন মহানগর উত্তর সভাপতি অধ্যক্ষ শেখ ফজলে বারী মাসউদ, আতিকুর রহমান মুজাহিদ, আরিফ বিন মেহের উদ্দিন প্রমুখ।

মুফতী ফয়জুল করীম, দেশের এই ক্রান্তিকালে যুব আন্দোলন নেতৃবৃন্দকে সময় উপযোগি পদক্ষেপ নিয়ে অগ্রসর হওয়ার আহ্বান জানান।