বৃহস্পতিবার, ৯ জুলাই, ২০১৫

মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম দাঃবাঃ এর মুক্তিতে সৌদি বিশিষ্ট নাগরিকদের মাঝেও আবেগ ও অশ্রু মিশ্রিত আনন্দ বিরাজ করছে।

মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম দাঃবাঃ এর মুক্তিতে সৌদি বিশিষ্ট নাগরিকদের মাঝেও আবেগ ও অশ্রু মিশ্রিত আনন্দ বিরাজ করছে।
হুযুররের সাক্ষাৎএ সৌদি সরকারের অতিথি হিসেবে হুযুরের অবস্থানরত পাঁচ তারকা হোটেলে লবিতে আসছেন সৌদি নাগরিকরা


মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম সাহেব সৌদি আরবের গোয়েন্দা পুলিশ হেফাজতে
থাককালীন তাকে মুক্ত করার জন্য ব্যাপক
প্রচেষ্টা চালিয়েছিলেন সৌদি নাগরিক ফাহাদ বিন আব্দুল আজিজ। আজকে হুজুরের মুক্তির সংবাদ শুনে তিনি ছুটে এসেছিলেন হোটেল লবিতে। তার আবেগ মিশ্রিত কথা অনেককেই অশ্রুসজলকরে তোলে।


ছবিতে যাকে দেখতে পাচ্ছেন তিনি একজন আছলী সউদী। মুফতি সাহেব হুজুরকে কেন্দ্র করে ঘটে যাওয়া অনাকাঙ্খিত ঘটনা আমেলের (কর্মচারী) মুখে শুনেছেন।
একজন হক্কানী আলেমের প্রতি ষড়যন্ত্রকারীদের বিষেদাগার সহজে মেনে
নিতে পারেননি। তাই হুজুরের বন্দি অবস্থায় চেষ্টা করেছেন সাধ্যানুযায়ী সহায়তা করার।
জীবনে কখনো সাক্ষাৎ না হলেও হুজুরের
মুক্তির সংবাদ শুনে হোটেল লবিতে ছুটে
এসেছেন তার সাথে সাক্ষাত করতে। সাথে নিয়ে এসেছেন তিন সন্তানকে। তিনি যখন এসেছেন হুজুর তখন ঘুমে। হুজুর এতটাই
বেশি ক্লান্ত যে তাকে ডেকে জাগিয়ে তোলা
সম্ভব হয়নি।
সমস্যার কথা এই সৌদিকে জানানো হলে তিনি বললেন "সমস্যা নেই আমি অপেক্ষা করবো"।
সেই থেকে তিনি বসে আছেন প্রায় এক ঘন্টা অতিক্রম হতে চললো। বেচারা নাছোড় বান্দা, সাক্ষাৎ না করে যাবেন ই না।
কপি সূত্র :- মোহতরম Neser Uddin ভাই।