রবিবার, ২২ জানুয়ারী, ২০১৭

মূর্তি অপসারণের দাবিতে মিছিল করতে না দেয়ায় ইসলামী আন্দোলনের নিন্দা

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলম ও উত্তর সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন, সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে গ্রিক দেবীর মূর্তি অপসারণ এবং শিক্ষানীতি নিয়ে নাস্তিক্যবাদী চক্রান্তের প্রতিবাদে নিয়মতান্ত্রিকভাবে বিক্ষোভ মিছিল করার জন্য ডিএমপি কমিশনারের কাছে দরখাস্ত করার পরও অনুমতি না দিয়ে সরকার নাগরিক অধিকার কেড়ে নিয়েছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

গতকাল এক বিবৃতিতে তারা এ কথা বলেন। তারা আরো বলেন, পুলিশ জানিয়েছে মিছিল করার অনুমতি দেয়ার অধিকার তাদের নেই। এভাবে মূর্তির বিরুদ্ধে মিছিল করতে না দিয়ে সরকার ৯২ ভাগ মুসলমানকে পৌত্তলিকতার দিকে নিয়ে যেতে চায়। নেতৃদ্বয় বলেন, ৯২ ভাগ মুসলমানের দেশে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণসহ মোড়ে মোড়ে স্থাপিত সব মূর্তি ভেঙে দিতে হবে। মূর্তি বাংলাদেশ ও মুসলমানের সংস্কৃতি নয়। এটা ভারতের সংস্কৃতি। ইসলাম এসেছে মূর্তিকে ভেঙে দিয়ে একত্ববাদ প্রতিষ্ঠার জন্য। কাজেই মুসলমানদের চিন্তাচেতনা বিনাশী মূর্তির সংস্কৃতি থেকে সরকারকে বের হয়ে আসতে হবে। সুপ্রিম কোর্টের ইতিহাসে মূর্তি নেই এবং সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে অতীতে কোনো মূর্তি ছিল না। কিন্তু হঠাৎ করে কিভাবে এবং কারা এই গ্রীক মূর্তি স্থাপন করে বাংলাদেশে নতুন করে সাম্প্রদায়িক হাঙ্গামা লাগাতে চায় তাদের খুঁজে বের করতে হবে এবং কঠোর শাস্তির মুখোমুখি করতে হবে। অন্যথায় সরকারের বিরুদ্ধে তীব্র আন্দোলন গড়ে উঠবে।