শুক্রবার, ৭ এপ্রিল, ২০১৭

মঙ্গল শোভাযাত্রা বাধ্যতামূলক করার প্রতিবাদে কিশোরগঞ্জে জাতীয় শিক্ষক ফোরামের মানববন্ধন

আশরাফ আলী সোহান, স্টাফ রির্পোটার : আজ ৭ এপ্রিল শুক্রবার  জাতীয় শিক্ষক ফোরাম কিশোরগঞ্জ জেলা শাখার উদ্যোগে ঐতিহাসিক শহীদী মসজিদের সামনে মঙ্গল শোভাযাত্রার নামে মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশে হিন্দুয়ানী সংস্কৃতি চাপিয়ে দেওয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। বিকাল ৫টায় আসরের নামাযের পর জাতীয় শিক্ষক ফোরামের নেতাকর্মীরা মানববন্ধন করে। জাতীয় শিক্ষক ফোরামের কিশোরগঞ্জ জেলার আহবায়কের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন প্রভাষক আলমগীর হোসাইন। এছড়াও বক্তব্য রাখেন শিক্ষক নেতা শফিকুল ইসলাম ফারুকী, মহিউদ্দিন আজমী, হেলাল উদ্দিন জুয়েল, কিশোরগঞ্জ গুরুদয়াল কলেজের মেধাবী ছাত্র  মাজহারুল ইসলামসহ প্রমুখ ।
মানববন্ধনে প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন  শিক্ষামন্ত্রনালয় সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রজ্ঞাপন জারীর মাধ্যমে মঙ্গল শোভাযাত্রা পালন বাধ্যতা মূলক করেছে। আমি শিক্ষা মন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলতে চাই শিক্ষা মন্ত্রী নাস্তিক হতে পারে কিন্তু ৯২ পার্সেন্ট মুসলমানদের উপর হিন্দুয়ানী রীতি মঙ্গল শোভাযাত্রার নামে অপসংস্কৃতি বাধ্যতা মূলক করতে পারে না। এছাড়াও আমি সুষ্পষ্ট করে প্রধান বিচারপতিকে বলতে চাই, আপনি অন্য ধর্মের হতে পারেন কিন্তু  মুসলমানদের দেশে বিচারালয়ে মূর্তি স্থাপনের মাধ্যমে আপনার ধর্ম বিশ্বাস চাপিয়ে দিতে পারেন না। প্রধানমন্ত্রীকে হুশিয়ারি করে বলতে চাই বিচারপতি সিনহা কে নিয়ে পালাতে হলে আওয়ামীলীগকেই পালাতে হবে। ২০০১ এর কথা ভুলে যাবে না। তাই সময় থাকতে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশ গ্রহণ বাধ্যতা মূলকের আদেশ বাতিল করতে হবে । সূপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে গ্রীক মূর্তি অপসারনের দাবিতে আমরা এতো দিন মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল করে এসেছি। ২১ তারিখ মহাসমাবেশে পীর সাহেব চরমোনাই আহবানে চূড়ান্ত ফলাফল দেখাবে তৌহিদী জনতা । সারা দেশ থেকে ইসলাম প্রিয় জনতা প্রস্তুতি নিচ্ছে, তাই চূড়ান্ত মূর্হুতের আগেই সূপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে মূর্তি সরিয়ে নেন ।
এছাড়াও শিক্ষক নেতাগণ বলেন যে, হাজার বছরের বাঙ্গালীর ইতিহাসে মঙ্গল শোভাযাত্রার নামে বিজাতীয় সংস্কৃতি ছিল না। তাই মুসলিম দেশে, আধুনিক বিশ্বে এমন অযৌক্তিক, গোড়ামির নামে মঙ্গর শোভাযাত্রা প্রতিহত করতে তৌহিদী জনতা প্রস্তুত। প্রাথমিক পর্যায়ে আমরা মানববন্ধন করছি, পরবর্তীতে পীর সাহেব চরমোনাই এর আহবানে আমরা মাঠে নামবো ইনশাআল্লাহ।
মানববন্ধনে অংশ গ্রহণ করে ইশা ছাত্র আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল্লাহ মাহবুব, অর্থ সম্পাদক আবরারুল হক, দফতর সম্পাদক আবু বকর, যুব আন্দোলনের আহবায়ক মাজহারুল ইসলাম, রবিউল ইসলাম সহ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।
মানববন্ধনে অংশ গ্রহণকারী সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে দোয়ার মাধ্যমে মানববন্ধন সমাপ্ত ঘোষনা করা হয়।